Bh Rubel

Learn and Be Succeed

কয়েক টুকরা কাগজের সনদ অর্জন করা পড়াশুনার উদ্দেশ্য হতে পারে না

আমাদের পড়াশুনা করা উচিত নিজেদেরকে উপযুক্ত নাগরিক এবং একজন উপযুক্ত মানুষ হিসেবে গড়ে তোলার জন্য । কয়েক টুকরা কাগজের সনদ অর্জন করার জন্য নয়। যে শিক্ষা আমাদেরকে ভালো- মন্ধ বোঝার ক্ষমতা সৃষ্টি করে, যে শিক্ষা আমাদেরকে অন্ধকারকে অন্ধকার ,আলোকে আলো বলতে শেখায়, সে শিক্ষাই প্রকৃত শিক্ষা। যে প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষীত ,তার কোন চাকরির পেছনে দৌড়াতে হয় না ,চাকরি তার পেছনে দৌড়াবে।
আপনি প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষীত ,কিন্তু চাকরি পাচ্ছেন না ? আপনি কী চাকরির জন্য পড়াশুনা করেছেন , না নিজেকে তৈরি করার জন্য পড়াশুনা করেছেন? নিজেকে তৈরি করার জন্য পড়াশুনা করলে আপনিতো এ সমাজের উপযুক্ত নাগরিক, ভয় কেন পাবেন ? নিজে নিজের যেগ্যতা কাজে লাগিয়ে ,নিজেই কর্মক্ষেত্র তৈরি করে ফেলুন ,যেখানে আপনিই হতে পারেন উদ্ধোক্তা।

কীভাবে আপনি হতে পারেন একজন সফল ব্যক্তি? সবই সম্ভব।

সর্ব প্রথম লক্ষ্য স্থির করুন এবং তার উপর ফোকাস করুন। স্থির করুন আপনার লক্ষ্য । এটাই ভালো যদি আপনার লক্ষ্য হয় একটা নয় একাধিক ।সর্বদা মনযোগী হন আপনার লক্ষ্যের প্রতি । স্থির করুন আপনার ফোকাস ,লক্ষ্য রাখুন গন্তব্যের প্রতি । এটাই আপনার সফলতার চাবিকাঠি । যদি আপনার ফোকাস নড়ে যায় তাহলে আপনার লক্ষ্যে পৌঁছা কঠিন হয়ে যাবে।


আজ আমরা কেন ব্যর্থ হই? কারণ আমরা নিজেদের জন্য লড়াই করতে ভয় পাই। আমরা ভূলে যাই আমরা ও যৌদ্ধা ,যুদ্ধ করে ছিনিয়ে আনতে পারি জয়। যখন আমরা ব্যর্থ হই তখন আবার চেষ্টা করার আগ্রহ হারিয়ে ফেলি অথবা আমাদের প্রতিভা কঠোর পরিশ্রম করতে প্রেরণার অভাববোধ করে। কেউতো আমাদের প্রেরণা দিবে না । আমরাই আমাদের প্রেরণা ।আমাকে আমার চেয়ে কেউ কী ভাল বুঝতে পারবে? কখনও পারবে না ।


আমরা পৃথিবীর সফল মানুষ ‍গুলোর দিকে তাকালে ,দেখবো কেউ ব্যর্থতা ছাড়া সফলতা পায়নি।


জে কে রাওলিং বলেছেন,
“কোন ক্ষেত্রে ব্যর্থ হওয়া ছাড়া জীবন অসম্ভব ,যদি না আপনি খুব সাবধানে জীবন- যাপন করে থাকেন বা কখনো চেষ্টাই না করে থাকেন, সেক্ষেত্রে আপনি নিজের দোষেই ব্যর্থ হবেন।”

যারা ব্যর্থ হয়েছিলেন, তাদের মধ্যে দুইটি জিনিস লক্ষ্য করা যায় । তারা কখনো থেমে থাকেনি এবং তাঁরা নিজেদের যোগ্যতাকে কখনো সন্দেহ করেনি। অন্য কথায় সফল না হওয়া পর্যন্ত তারা বারবার চেষ্টা করে গেছেন, কারণ তারা জানতেন তাদের মধ্যে পৃথিবীকে দেয়ার মতো ভিন্ন এবং চমৎকার কিছু আছে। তারা মোটেও ব্যর্থ ছিলেন না ,কারণ তারা নিজেদের প্রতিভা ,আবেগ ও চিন্তাভাবনার জন্য সবকিছু ত্যাগ করেছিলেন। যার ফলেই তারা আজ পৃতিবীতে সফল।

বাংলাদেশ ওয়ানডে ক্রিকেট টিমের অধিনায়ক মাশরাফি আমাদের জন্য প্রেরণা। বাংলাদেশের লাগামহীন বোলার মাশরাফিকে ইনজুরি ছাড়া আর কেউ আটকাতে পারেনি । তিনি বাংলাদেশের তরুনদের জন্য অনুপ্রেরণা।


আমরা যদি জ্যাক মার দিকে তাকাই যে কিনা পৃথিবীর অন্যতম বড় অনলাইনভিত্তিক কোম্পানি আলিবাবা ডটকমের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান। বারবার ব্যর্থতা তাকে পরাজিত করতে পারেনি বারবার ব্যর্থ হয়েও তিনি ঘুরে দাঁড়িয়েছেন ,অসম্ভব সব প্রতিকুলতার মোকাবিলা করে পৌঁছেছেন সাফল্যের শিখরে। তিনি পড়ালেখায় কখনোই খুব ভাল ছিলেন না। কিন্তু তিনি না জানা এবং না পাড়া বিষয় গুলো নিয়ে সব সময় ভাবতেন । এ ভাবনাটাই তার জীবনের সফলতার অন্যতম কারণ।

Popular Posts